সুযোগের অপেক্ষায় রুবেল- মোসাদ্দেক

আপডেটঃ ৯:৪৮ পূর্বাহ্ণ | মে ১৫, ২০১৯

ক্রীড়া ডেস্ক :এক ম্যাচ হাতে রেখে ওয়ালটন ত্রিদেশীয় টুর্নামেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশ। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আগামীকালের ম্যাচটি তাই বাংলাদেশের নিয়ম-রক্ষার। তবে ভিন্ন চ্যালেঞ্জ রয়েছে বাংলাদেশ দলে।

প্রথমত আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখা এবং দ্বিতীয়ত দলের সাইড বেঞ্চের শক্তির পরীক্ষা।

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ৯ ম্যাচে বাংলাদেশের জয় ৬টিতে। হেরেছে ২টিতে, ফল হয়নি ১ ম্যাচে। ২০১০ সালের পর আইরিশদের বিপক্ষে কখনো হারেনি বাংলাদেশ। জয়ের সেই রেকর্ড ধরে রাখতে মরিয়া বাংলাদেশ। এজন্য আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আগামীকালের ম্যাচটিতেও বাংলাদেশ বেশ সিরিয়াস।

আবার বিশ্বকাপের ঠিক আগে দল চাচ্ছে সাইড বেঞ্চের খেলোয়াড়দের পরীক্ষা নিতে। এজন্য প্রথম দুই ম্যাচে একাদশের বাইরে থাকা খেলোয়াড়দের সুযোগ দিতে চায় টিম ম্যানেজম্যান্ট।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই ম্যাচে বোলারদের ভিন্ন ভিন্ন সময়ে বোলিং করিয়ে টিম ম্যানেজম্যান্ট পরীক্ষা নিয়েছে। যাতে সফল বোলাররা। মাশরাফি, সাকিব, মিরাজ দুই ম্যাচে দারুণ বোলিং করেছেন। মুস্তাফিজ প্রথমটিতে খরুচে থাকলেও দ্বিতীয়টিতে ফিরেছেন স্বরূপে। সাইফউদ্দিন ইনজুরির কারণে দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে পারেননি, প্রথমটিতে ভালো করেছেন। তার পরিবর্তে দ্বিতীয় ম্যাচে অভিষিক্ত হওয়া আবু জায়েদ রাহী অবশ্য ভালো করেননি।

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে মূলত বিশ্রাম দেওয়া হবে বোলারদের। মুস্তাফিজুর রহমান বিশ্রামে যাচ্ছেন। বাঁহাতি পেসারের ইনজুরি প্রবণতা বেশি। তাকে বিশ্রাম দিয়ে খেলানোর পক্ষে দল। তার পরিবর্তে দলে আসতে পারেন রুবেল হোসেন। রাহী  সুযোগ পাবেন আরেকটি। এছাড়া পরীক্ষিত মিরাজের পরিবর্তে দলে ঢুকতে পারেন ব্যাটিং অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন।  ফরহাদ রেজাকে সুযোগ পাবেন কিনা তা অজানা।

দুই ম্যাচেই ব্যাটসম্যানরা ভালো করেছেন। তাই তাদের নিয়ে ততটা নড়াচড়ার প্রয়োজন হয়নি। সৌম্য ও তামিমের উদ্বোধনী জুটির রসায়ন দারুণ জমে উঠেছে। সাকিব রয়েছেন স্বরূপে। মুশফিক বরাবরের মতোই ধারাবাহিক। মিথুন শেষ ম্যাচে রান পেয়েছেন। মাহমুদউল্লাহর অবস্থাও তাই। সাব্বিরের ব্যাটিংয়ের সুযোগ হয়নি।

তাইতো আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সাব্বির রহমান খেলবেন তা নিশ্চিত। ওপেনিং তামিমের পরিবর্তে খেলতে পারেন লিটন। মাঝে মুশফিক, মিথুন ও মাহমুদউল্লাহ খেলবেন।

বিশ্বকাপ খুব কাছেই। বিশ্বকাপের মূল মঞ্চে মাঠে নামার আগে শেষ দুটি ম্যাচে নিজেদের সর্বোচ্চটা আদায় করার প্রত্যাশায় দল। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি তাই বাঁচা-মরার না হলেও কম গুরুত্বপূর্ণ নয়।