গোপনীয়তা লঙ্ঘনের দায়ে ৫ বিলিয়ন ডলার জরিমানা দেবে ফেসবুক!

আপডেটঃ ১০:৩৪ পূর্বাহ্ণ | এপ্রিল ২৬, ২০১৯

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : ২০১৯ সালের প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ) আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ফেসবুক। আর ত্রৈমাসিক এই প্রতিবেদনটিতে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশনকে সর্বোচ্চ ৫ বিলিয়ন ডলার জরিমানা দেয়ার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছে কোম্পানিটি। তবে লক্ষনীয় বিষয় হলো, বছরের প্রথম তিন মাসে ফেসবুকের আয় বৃদ্ধি পেয়েছে ১৫ বিলিয়ন ডলার।

এই আর্থিক প্রতিবেদনে ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি) এর তদন্ত মোকাবেলায় তাদের ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয় হয়েছে বলে উল্লেখ করেছে ফেসবুক। যার ফলে কোম্পানিটির বাৎসরিক আয় ৫১% কমে গেছে যার মোট পরিমাণ ২.৪ বিলিয়ন ডলার। তবে এককালীন এই অতিরিক্ত খরচ সত্ত্বেও ফেসবুকের শেয়ার বৃদ্ধির হার বাজার বিশ্লেষকদের ধারণাকেও হার মানিয়েছে। প্রথম প্রান্তিকে ফেসবুকের শেয়ার ২০ পয়েন্ট (২২%) বৃদ্ধি পেয়েছে।

ফেসুকের এক মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা আশা করছি এফটিসি যে জরিমানা ধার্য করবে তার পরিমাণ ৩ থেকে ৫ বিলিয়ন ডলারের বেশি হবে না। বিষয়টি এখনো অমীমাংসিত রয়ে গেছে। চূড়ান্ত ফলাফল কখন আসবে বা কোন কোন শর্তাদি এতে যুক্ত থাকবে এ ব্যাপারেও আমরা এখনও নিশ্চিত নই।’

২০১৪ সালের মার্চ মাসে ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারির ঘটনায় এফটিসি ফেসবুকের গোপনীয়তা লঙ্ঘনের তদন্ত শুরু করে। তদন্তে ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকাতে ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য ব্যবহার করার জন্য এফটিসি’র সঙ্গে ফেসবুকের ২০১১ সালের চুক্তির কোন কোন বিষয়গুলো লঙ্ঘন করেছে তার উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করে। ফেসবুক এবং এফটিসি জানিয়েছে যে, এই চুক্তিটি নিয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা চলছে। গোপনীয়তা লঙ্ঘনের জন্য এযাবতকালে সবচেয়ে বড় জরিমানা গুনতে হয়েছে গুগলকে। ২০১২ সালে গুগলকে ২২.৫ মিলিয়ন ডলার জরিমানা করে এফটিসি।

তথ্যসূত্র : দ্য গার্ডিয়ান