নরসিংদীতে র‌্যাব-১১এর অভিযানে বিদেশী অস্ত্রও গোলাবারুদসহ শফিক বাহিনীর র্শীষ ৬ সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার

আপডেটঃ ১১:১৩ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২৫, ২০১৯

এম.এ. সালাম রানা,নরসিংদীঃনরসিংদীতে র‌্যাব-১১ এর অভিযানে দুটি বিদেশী অস্ত্রও ১২০ রাউন্ড গোলাবারুদ ও দেশীয় অস্ত্রসহ শফিক বাহিনীর র্শীষ ৬ জন সন্ত্রাসীকে গ্রেপ্তার করেছে।বৃহস্পতিবার(২৫এপ্রিল)ভোরে পৌর শহরের সাটিরপাড়া শিববাগ মোড় এলাকায় একটি অভিযানিক দল অভিযান চালিয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করে।র‌্যাবের দাবি গ্রেপ্তারকৃতরা সম্প্রতি র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত শীর্ষ সন্ত্রাসী শফিক বাহিনীর সদস্য।আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে নরসিংদী প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব ১১ এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল কাজী শমসের উদ্দিন এসব তথ্য জানান।গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, নরসিংদী শহরের সাটিরপাড়া মহল্লার মোঃ আনিসুল হক ওরফে আনিস (৩৮), একই এলাকার শ্রী রাজু ভৌমিক (৩০), রাঙ্গামাটিয়া এলাকার মোঃফজলে রাব্বী (২৬), কাউরিয়াপাড়া এলাকার মোঃ রাব্বী (২৩), সদর উপজেলার করিমপুর এলাকার মোঃ পাপন মিয়া (২২), শীলমান্দি এলাকার মোঃ মাসুদ মিয়া (৩০)।সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১১ জানায়, গত ২৬ মার্চ নরসিংদীর শীর্ষ সন্ত্রাসী শফিক বাহিনীর প্রধান মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিক নিহত হওয়ার পর পুরো সন্ত্রাসী বাহিনীটি সন্ত্রাসী আনিসুল হক আনিসের নিয়ন্ত্রণে চলে যায়।সন্ত্রাসী আনিস সন্ত্রাসী শফিক বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড ছিল।সন্ত্রাসী রাজু ভৌমিক শফিক বাহিনীর চাঁদাবাজি, ডাকাতি, ছিনতাই ও অবৈধ দখলদারির সমন্বয়কারির দায়িত্ব পালন করত।আর সন্ত্রাসী পাপন, রাব্বী, ফজলে রাব্বী ও মাসুদ মিয়া দীর্ঘদিন ধরে শফিক বাহিনীর সন্ত্রাসী কর্মকা- সামনে থেকে পরিচালনা করত।তাদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, ডাকাতি ও সন্ত্রাসী কর্মকা- এমন পর্যায়ে চলে গেছে যে, তাদের হিংস্রতা, অত্যাচার ও নির্যাতনের ভয়ে সংক্ষুব্ধ জনসাধারণ কথা বলার এবং এর প্রতিকার চাওয়ার সাহস পেত না।তাদের চাঁদাবাজি ফুটপাতের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে শিল্পপতি পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল।তাদের বিরুদ্ধে হত্যা, চাঁদাবাজি ও অস্ত্রসহ একাধিক মামলা রয়েছে।