পাক সেনাবাহিনীকে রাজনীতি থেকে দূরে থাকার নির্দেশ

আপডেটঃ ৯:৩৮ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :পাকিস্তানের সেনাবাহিনীকে রাজনীতি থেকে দূরে থাকার নির্দেশ দিয়েছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত।  এছাড়া সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টিলিজেন্সকে (আইএসআই) সরকারের নির্ধারিত আইনে পরিচালনার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

২০১৭ সালে বিচারমন্ত্রী জাহিদ হামিদের পদত্যাগের দাবিতে ফয়জাবাদে তেহরিক-ই লাব্বাইক পাকিস্তান  ও সমমনা দলগুলোর সহিংস বিক্ষোভের ঘটনায়  দায়ের করা মামলার রায়ে বুধবার দুই সদস্যের বেঞ্চ এ আদেশ দিয়েছে।

বিচারপতি কাজি ফায়েজ ইসা ও বিচারপতি মুশির আলম বলেছেন, ‘আমরা কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারগুলোকে যারা বিদ্বেষ, চরমপন্থা ও সন্ত্রাসবাদের সমর্থন দেয় তাদের ওপর নজরদারি এবং অপরাধীদের আইন অনুযায়ী বিচারের নির্দেশ দিচ্ছি।’

আদালত সেনাবাহিনী পরিচালিত আইএসআইসহ সব সরকারি সংস্থা ও বিভাগকে আইনের নির্ধারিত সীমার মধ্যে পরিচালনার নির্দেশ দিয়েছে। এছাড়া সামরিক বাহিনীর সদস্যদের কোনো রাজনৈতিক দল বা ব্যক্তিকে সমর্থনসহ যে কোনো রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে দূরে থাকার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

আদালত বলেছে, ‘সরকারসহ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনী প্রধানকে অধীনস্তদের মধ্যে যারা শপথ ভঙ্গ করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে।’

১৯৪৭ সালে স্বাধীনতার পর পাকিস্তানের ইতিহাসে দীর্ঘ একটা সময় সেনাবাহিনী দেশ চালিয়েছে। কখনো গণতান্ত্রিক সরকার ক্ষমতায় থাকলেও পর্দার অন্তরাল থেকে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে প্রভাব বিস্তার করেছে সেনাবাহিনী।