নাটকীয় হারে সিরিজ খোয়ালো পাকিস্তান

আপডেটঃ ১০:৫৬ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০১৯

ক্রীড়া ডেস্ক:তীরে এসে তরী ডুবানোর ঘটনা নতুন নয় পাকিস্তানের। এবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতেও এমন এক ঘটনার সাক্ষী হল দলটি। রোমাঞ্চকর ম্যাচে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে গতকাল রাতের হারে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হাতছাড়া করেছে পাকিস্তান।

টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ডেভিড মিলারের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ৩ উইকেটে ১৮৮ করে দক্ষিণ আফ্রিকা। জবাবে দুর্দান্ত  ‍শুরুর পরও ৭ উইকেটে ১৮১ রানে থেমে যায় পাকিস্তানের দৌড়। এ ম্যাচে ৭ রানে হারের মধ্য দিয়ে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-০ ব্যবধানে হেরেছে শোয়েব মালিকের দল।

১৮৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শেষ ওভারে পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ১৫ রান। আন্দিলে ফিকোয়াওয়ের প্রথম বলেই চার মেরে চাপ কমান শোয়েব মালিক। শেষ ৫ বলে তখন দরকার ১১ রান। পাকিস্তানের হাতে ছিল ৫ উইকেট। জয় তুলে নিতে তখনও কঠিন কিছু ছিল না সফরকারীদের সামনে।

মালিকের চারের পর পরের দুই বলে এল দুই রান। কিন্তু পরের দুই বলেই এলোমেলো পাকিস্তান। প্রথমে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন শোয়েব মালিক, পরের বলে বোল্ড হাসান আলী। শেষ বলে মাত্র ১ রান নিয়ে জয় থেকে ৮ রান দূরে থেমেছে সফরকারী দল। ফলে ঘরের মাঠে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে পাকিস্তান।

অথচ প্রতিপক্ষের মাঠে শুরুটা কি দুর্দান্তই না ছিল পাকিস্তানের। দলীয় ৪৫ রানে প্রথম উইকেট পতনের পর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতেই জয়ের ভীত গড়ে ফেলেছিল পাকিস্তান। এসময় হুসাইন তালাদের সঙ্গে ১০২ রানের অসাধারণ এক জুটি গড়েন বাবর আজম। দলের হয়ে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৯০ রান আসে বাবর আজমের ব্যাট থেকে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫৫ রান করেন হুসাইন তালাত। আর সেই ম্যাচেই কিনা হার নিয়ে ফেরে আনপ্রেডিক্টেবল দলটি।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে প্রোটিয়াদের হয়ে ২৯ বলে ৪ চার ও ৫ ছক্কায় ৬৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন ডেভিড মিলার। ৪৫ রান আসে ফন ডারসনের ব্যাট থেকে। এছাড়া রেজা হেনড্রিক্স ২৮ ও জানেম্যান মালানের ৩৩ রানের ইনিংস ভর করে ১৮৮ রানের পুঁজি পেয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা।