‘সাব্বিরের এটাই শেষ সুযোগ, এরপর আজীবন নিষিদ্ধ’

আপডেটঃ ৯:১১ পূর্বাহ্ণ | জানুয়ারি ২৯, ২০১৯

ক্রীড়া প্রতিবেদক : সাব্বির রহমানকে জাতীয় দলে নেওয়ার প্রক্রিয়াতে কোনো হাত ছিল না বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি।

সোমবার চট্টগ্রামে নাজমূল বলেছেন, ‘আসলে আগে আমি দলের কিংবা স্কোয়াডের প্রতিটা জিনিসে যেভাবে অংশগ্রহণ করেছি, গত তিন মাস ধরে সেখান থেকে সরে এসেছি। আমি কোনো প্রকারের হস্তক্ষেপ করছি না। এখন ওরাই সব করছে।’

তাহলে সাব্বির দলে ঢুকল কীভাবে?

উত্তরে তিনি বলেন, ‘অধিনায়ক, কোচ হয়তো চেয়েছে। আমাকেও জানানো হয়েছিল যে ওর শাস্তি শেষ। তাই আমি অতটা আগ্রহ দেখাইনি। ওরা আগের থেকেই চাইছিল বিশ্বকাপের জন্য। মূলত ওরা বলছিল যদি পারফর্ম করে তাহলে বিশ্বকাপে ওর একটা সুযোগ আছে। বিশ্বকাপের আগে এই সিরিজে ওকে খেলাতে পারে, আবার  নাও পারে। দলের সাথে নিয়ে গেলে হয়তো ওর চিন্তা এবং মানসিকতা সব ঠিক হবে। কন্ডিশনের জন্যও হতে পারে।’

এর আগেও সাব্বিরকে দলে নিতে একাধিকবার অনুরোধ গিয়েছিল বলে জানিয়েছেন বোর্ড সভাপতি, ‘ওকে যখন বাদ দেওয়া হয় তারপর অনেকবার কিন্তু অনুরোধ এসেছে ওকে দলে নেওয়ার জন্য। আমরা সাধারণত এমনটা নিতে চাইনা বা নিইনা। কিন্তু মাঝে মধ্যে হয় কি এর আগেও দেখেছেন এবং অনেকেই মনে করে ওর আসলে পরিবর্তন হয়েছে, এটা বিশ্বাস করতে থাকে তাহলে অনুরোধ আসতে থাকে।’

তবে সাব্বিরকে এভাবে সুযোগ দেওয়ার পক্ষে নন বোর্ড সভাপতি। তার মতে, সাব্বিরকে আরো সময় নিয়ে ফেরানো উচিত ছিল। তবে এই সুযোগটি সাব্বিরের শেষ সুযোগ, সেটাও সাফ জানিয়েছেন তিনি, ‘আমি মনে করি আরো বুঝেশুনে আসলে ওর জন্য ভালো হতো। ওর জন্য এখন অনেক ঝুঁকি। সামান্য ভুলে ওর ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যেতে পারে। এটা অবশ্যই ওর জন্য শেষ সুযোগ। এরপরেও যদি আবারো এমন কিছু করে জীবনেও আর খেলতে পারবে না।’

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাব্বিরের ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ এক মাস কমিয়ে নিউজিল্যান্ড সফরের ওয়ানডে দলে নেওয়া হয়েছে।