নরসিংদীতে চরা লের সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেফতার ১৩ ॥ অস্ত্র উদ্ধার থানায় মামলা

আপডেটঃ ১১:৩১ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ১৭, ২০১৮

এম.এ.সালাম রানা,নরসিংদী:নরসিংদীতে রায়পুরা উপজেলার চরা ল বাঁশগাড়ি ও নীলক্ষায় দুই পক্ষের পৃথক সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় পুলিশ তাদের কাছ থেকে ৯টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ ১২ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে।
১৬ নভেম্বর শুক্রবার রাতে রায়পুরা উপজেলার চরমধূয়া সিকদার বাড়ী ঘাট থেকে ১টি বন্দুক ও ৬ রাউন্ড গুলিসহ ৪ জনকে এবং বাশঁগাড়ী সোবাহানপুর ঘাট থেকে ১ টি পাইপ, ৭ টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৬ রাউন্ড গুলিসহ ৯ জনকে গ্রেফতার করে।
এঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে রায়পুরা থানায় মোট ১৩ জনকে আসামী করে পৃথক পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন।
নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকির হাসান গ্রেফতারের কথা নিশ্চিত করে বলেন, মূলত আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করেই চরা লে এই সংঘর্ষ ও হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। এখানে আধিপত্য বিস্তারের ঘটনা দীর্ঘদিনের। দু’টি দলের সাহেদ সরকার ও সিরাজুল ইসলাম চেয়ারম্যান ২জনই মারা যাওয়ার পরও থেমে থেমে এই সংঘর্ষ চলে আসছিল। এরই সুবাদে শুক্রবার ভোরে সাহেদ সরকারের সমর্থকরা নিজ গ্রামে প্রবেশের চেষ্টা করলে প্রতিপক্ষ সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল সমর্থকরা বাধা দেয়। এ নিয়ে উভয় গ্রুপ সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। এই সংঘর্ষ বাঁশগাড়ী ও নিলক্ষা ইউনিয়নের গোপিনাথপুর গ্রামে ছড়িয়ে পড়ে।
তিনি আরো বলেন, হামলা পাল্টা হামলা ও সংঘর্ষে ৩ জন নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে।