যে কারণে আবারো জাতীয় দলে আশরাফুল

আপডেটঃ ১১:২৬ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৬

ক্রীড়া প্রতিবেদক:
বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রথম সুপার স্টার তিনি। তিনিই বাংলাদেশের ক্রিকেটকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে গেছেন। এখনো সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান হিসেবে মোহাম্মদ আশরাফুলের নামই লেখা হয়। একটি অযাযিত ভুলের কারণে ম্যাচ ফিক্সিং কেলেংকারিতে জড়িয়ে আশরাফুল ৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটাচ্ছেন। চলতি বছরের অক্টোবরেই শেষ হচ্ছে আশরাফুলের ওপর নিষেধাজ্ঞা।

নিজেকে ফিট রাখতে ও ক্রিকেটে ফিরতে দারুণ উদগ্রীব বাংলাদেশের এই লিটল মাস্টার। অনেকেই মনে করছেন আশরাফুলের দিন শেষ। তাকে আর কোনদিন বাংলাদেশ জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দেখা যাবে না। এদিকে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ক্রিকেটে ফেরাটাও খুব সহজ নয়; তা পাকিস্তানের আমির, সালমান বাট ও আফিসের ক্ষেত্রে বেশ ভালো করেই বুঝা যাচ্ছে।

তবে আশরাফুলের ক্ষেত্রে বিষয়টা একটু ভিন্ন হতে পারে। কৃতজ্ঞতার কারণে হলেও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের উচিত আশরাফুলকে জাতীয় দলে শেষ বারের মতো সুযোগ দেয়া। যদি তার ফর্ম ও ফিটনেস ভালো থাকে তাহলে আশরাফুল অবশ্যই দলে ফেরার দাবি রাখেন।

বিষয়টা পরিষ্কারভাবে বুঝিয়ে বলতে গিয়ে ক্রিকেট প্রেমী সাংবাদিক উৎপল দাস তার ফেসবুক ওয়ালে লিখেছেন, ২০০৮ সালে আইসিএলের থাবায় যখন বাংলাদেশের ক্রিকেট ধ্বংসের পথে। বাশার, রফিক, আফতাব, অলকের মতো খেলোয়াররা যখন টাকার কাছে বিক্রি হয়ে গিয়েছিলেন। তখন একমাত্র আশরাফুলই বাংলাদেশ ক্রিকেটের কাণ্ডারি হয়ে দলের অধিনায়কত্ব গ্রহণ করেছিলেন। সে কারণে অবশ্যই আশরাফুল আবারো জাতীয় দলে খেলতে পারেন।