বাউফলে পুলিশের ভুমিকা প্রশ্নবিদ্ধ …………….চীফ হুইপ আসম ফিরোজ

আপডেটঃ ৫:০৮ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২২, ২০১৮

মোঃ হুমায়ুন কবির,বাউফল(পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃপটুয়াখালীর বাউফলে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির জন্য বাউফল থানার পুলিশ প্রশাসনকে সরাসরি দায়ী করেছেন জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ,স,ম ফিরোজ এমপি।  রবিবার সকাল সাড়ে দশটায় উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয় জনতা ভবনে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে এক বৈঠকে তিনি প্রশাসনের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করেন ।
চীফ হুইপ বলেন, সম্প্রতি বাউফলে একের পর এক খুন, রাহাজানি, বাড়ী ঘর ভাংচুর, লুটপাট, ধর্ষণ, অপহরন, মিথ্যা মামলা দিয়ে দলীয় লোকদের হয়রানী করন সহ সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বেড়ে গিয়ে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি চরম অবনতি ঘটেছে। এ ক্ষেত্রে পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ। স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন একটি মহলের পক্ষ নিয়ে কাজ করছেন বলেও তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করেন। ওই কুচক্রি মহলটি জামাত- বিএনপির সহাযোগীতায় বাউফল আওয়ামীলীগের বিরুদ্ধে যড়যন্ত্রে লিপ্ত। তারা বাউফল আওয়ামী লীগকে দ্বিখন্ডিত করে শান্ত বাউফলকে অশান্ত করার কাজে লিপ্ত। গত শনিবার নওমালা ইউনিয়নের ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। উক্ত মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ওই কুচক্রি মহলটি বাউফল আওয়ামীলীগের অর্ধশত নেতা কর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। ইতিপূর্বে ওই মহলটির সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হলেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেয়নি। চীফ হুইপ সমস্ত সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের জন্য আওয়ামীলীগের অপর একটি পক্ষকে পরোক্ষ ভাবে ইঙ্গিত করেন। সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেন খান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি শামসুল আলম মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোতালেব হাওলাদার, সাংগঠনিক সম্পাদক ইব্রাহিম ফারুক প্রমুখ। এ ব্যাপারে বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম বলেন, পুলিশ একটি মহলের পক্ষে কাজ করছেন এ কথা সঠিক নয়। স্থানীয় ভাবে আওয়ামীলীগের দলীয় কোন্দল। আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ নিরলস ভাবে কাজ করছে।