‘জীবনের শেষ সম্বল দিয়ে নৌকা তৈরি করলেন টঙ্গীর ৪ রিকশা চালক’

আপডেটঃ ৭:৫৭ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২১, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : ‘শেখ মুজিবুর রহমানকে চোখে দেখিনি, তাঁর ভাষণ আমরা শুনেছি। তাঁর দেয়া ভাষণ শুনে আজও আমাদের গাঁ শিহরে উঠে। ভালো কিছু করার অনুপ্রেরণা জোগায়।’ এমন আবেগ ভরা কণ্ঠে কথাগুলো বলছিলেন বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভালোবেসে জীবনের শেষ সম্বল দিয়ে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রতীক নৌকা প্রস্তুতকারী ৪ রিকশাচালক। নৌকাটি প্রস্তুতে কুড়িগ্রাম জেলার কচাকাটা থানার রাঙ্গাইলা কুটিগ্রামের মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে মো. শাহীন আলম, শেরপুর জেলার শ্রীবর্দী থানার ছুনকান্দা গ্রামের মো. হযরত আলীর ছেলে আবুল কালাম, শেরপুর জেলার শ্রীবর্দী থানার মুন্সিপাড়া গ্রামের সওদাগর আলীর ছেলে আইয়ুব আলী ও শেরপুর জেলার শ্রীবর্দী থানার বরইকুচি গ্রামের মৃত কফিল উদ্দিনের ছেলে মো. জহুরুল হক। তারা সকলেই পেশায় রিকশা চালক। জীবিকার তাগিদে থাকেন টঙ্গীর মধ্য আউচপাড়া সুরতরঙ্গ রোডে। গত ১৯৯৭ সাল থেকে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সঞ্চয়ের মাধ্যমে তারা ২লাখ ৫০ হাজার টাকায় নৌকাটি চলতি বছরের ২৬ মার্চ পুরোপুরি প্রস্তুতের কাজ শেষ করেন। পরে গত বছরের ২৭ মার্চ তারা নৌকাটি নিয়ে ধানমন্ডির ৩২ নম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাসভবনে নিয়ে যান। সেখান থেকে ওই নৌকাটি নিয়ে তারা কুড়িগ্রাম জেলার কচাকাটা থানার রাঙ্গাইলা কুটিগ্রাম থেকে উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন গ্রামগঞ্জ ও শহরে ঘুরে ঘুরে প্রদর্শণ করেন। পরে সেটি নিয়ে গত প্রায় ছয়মাস যাবত লালমনিরহাট, জলঢাকা ডালিয়া, ঠাকুরগাঁ, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, রংপুর, গাইবান্ধা, বগুড়া, রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নাটোর, সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, শেরপুর, জামালপুর, কিশোরগঞ্জ, সিলেট, আখাউড়া, কুমিল্লা, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকার সংসদভবন চত্ত্বরসহ বিভিন্নস্থানে প্রদর্শণ করে গাজীপুর টঙ্গীতে এসে শেষ হয়। ইতিমধ্যে তারা যেসব জেলায় নৌকাটি প্রদর্শণ করেছেন সেখানকার সংশ্লিষ্ট জেলা ও থানা আওয়ামীলীগের নেতাদের প্রদর্শণী ডায়েরিতে স্বাক্ষর রয়েছে। তারা আক্ষেপ করে বলেন, আমরা কোন স্বার্থের জন্য নয় বরং বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সর্বোপরি আওয়ামীলীগকে ভালোবাসার নির্দশন হিসেবেই এটি তৈরি করেছি। সমাজের অনেকে অনেক কিছু বললেও আমরা পিছু হটিনি। শত কথা শোনার পরও আমরা নৌকাটি তৈরির কাজ এগিয়ে নিয়ে গেছি। কখনো কখনো পরিবারের সদস্যদের জন্য খাবার কম কিনে ওই টাকা দিয়ে নৌকাটি তৈরি করেছি। তারা আরও বলেন, আমাদের একমাত্র আশা যেকোনো মূল্যে প্রধানমন্ত্রীর সাথে শুধু ২মিনিট কথা বলে আমরা নৌকাটি ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে রেখে আসবো।