‘নির্বাচন নিয়ে অরাজকতা হলে ইসি দায়ী’

আপডেটঃ ৫:১৯ অপরাহ্ণ | মার্চ ১১, ২০১৮

সি এন এ  নিউজ,প্রতিবেদক : একাদশতম জাতীয় সংসদ নির্বাচন ‘একতরফা করতে’ নির্বাচন কমিশন (ইসি) সরকারের স্বার্থরক্ষা করছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। নির্বাচনের সমান সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত না হলে অরাজকতার আশঙ্কা রয়েছে জানিয়ে দলটি এজন্য ইসিকে দায়ী করছে।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এই বিষয়ে কথা বলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

নির্বাচন কমিশনকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন, সব দলের অংশগ্রহণে নতুন উদ্যোগ নেওয়া হবে না। তাহলে কী প্রধান নির্বাচন কমিশনার একতরফা নির্বাচনের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছেন? তাহলে নির্বাচন নির্বাচন জিকিরের তো দরকার নেই। নির্বাচনী শিডিউল ঘোষণা করে পরের দিনেই ক্ষমতাসীন দলকে বিজয়ী ঘোষণা করলেই তো পারেন।’

ক্ষমতাসীনরা সরকারি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছে অভিযোগ করে বিষয়টিকে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য প্রতিবন্ধকতা হিসেবে মনে করছেন রিজভী।

তিনি বলেন, ‘জাতীয় নির্বাচনে সকল দলকে সমান সুযোগ এবং লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরির দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। প্রধান নির্বাচন কমিশনার তার বক্তব্য ও আচরণে একটা অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচন করতে আগ্রহী বলে মনে হয় না। তিনি তার মালিক পক্ষের অনুগত থেকে তাদের স্বার্থ রক্ষা করতেই যেন উঠেপড়ে লেগেছেন।’

‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার শেখ হাসিনার দুর্বিনীত দুঃশাসনকে প্রলম্বিত করার ভোটারবিহীন একতরফা নির্বাচনের দিকে এগিয়ে গেলে দেশে চরম অরাজকতা সৃষ্টি হবে। আর এজন্য দায়ী থাকবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার,’ বলেন বিএনপির এই নেতা।

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সহায়ক সরকারের মাধ্যমে নির্বাচন করাই নির্বাচনী মাঠ সমতল হওয়ার প্রথম শর্ত পূরণ হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

সরকার বিএনপির নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার করে জেলখানাগুলোকে নাৎসীদের গ্যাস চেম্বারে পরিণত করেছে বলেও মন্তব্য করেন রুহুল কবির রিজভী।