বারহাট্টায় ইউএনওর হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো বাল্যবিয়ে

আপডেটঃ ৩:০৩ অপরাহ্ণ | মার্চ ১১, ২০১৮

মোঃ রুকুনুজ্জামান খান ,বারহাট্টা (নেত্রকোনা) সংবাদাদাতা: নেত্রকোনার বারহাট্টা ইউএনওর হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেল রাবেয়া আক্তার (১৪) নামে এক স্কুল ছাত্রী। শনিবার বিকেলে ইউএনও ফরিদা ইয়াসমিন বিষয়টি জানতে পেরে বিয়েটি বন্ধের ব্যবস্থা করেন। এতে করে স্কুল শিক্ষার্থী বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় বারহাট্টা সদরের গড়মা গ্রামের খাদেম আলীর ছেলে রাসেল মিয়া (১৯) সাথে একই গ্রামের কিশলয় উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ওই শিক্ষার্থীর বিয়ের আয়োজন করা হয় উপজেলার বাউসী বাজারে। স্কুল ছাত্রীর পরিবার উপজেলা বাউসী বাজারে গোপনে বিয়ের আয়োজন করে। বিষয়টি জানতে পেরে ইউএনও ফরিদা ইয়াসমিন বারহাট্টা থানার পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে হাজির হন। ইউএনও উভয় পরিবারকে ডেকে বাল্য বিয়ের কুফল সম্পর্কে বুঝিয়ে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেওয়া হবে না মর্মে মুচলেকা নিয়ে বিয়েটি বন্ধের ব্যবস্থা করেন।

ইউএনও ফরিদা ইয়াসমিন বলেন মেয়েটির পরিবার গোপনে বিয়ের আয়োজন করে। বাল্য বিয়ের কুফল সম্পর্কে তাদের বুঝিয়ে এ বাল্য বিয়েটি বন্ধ করা হয়।