বেসরকারি ৪ স্কুলের কোচিংবাজ ৭২ শিক্ষককে শোকজ

আপডেটঃ ৯:২০ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৫, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক :রাজধানীর নামি-দামি চার বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোচিংবাজ ৭২ শিক্ষককে শোকজ করা হয়েছে। এসব শিক্ষকদের আগামী ১০ কার্য দিবসের মধ্যে কারণ দর্শাতে নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। রোববার এ শোকজ জারি করা হয়।

জানা গেছে, আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মতিঝিল মডেল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ ও রাজউক উত্তরা মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষকরা এ তালিকায় রয়েছেন। এর মধ্যে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৩৬, মতিঝিল মডেল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ২৪, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৭ এবং রাজউক উত্তরা মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৫ শিক্ষক রয়েছেন।

মাউশির আদেশে বলা হয়েছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য বন্ধ নীতিমালা-২০১২ এর অনুচ্ছেদ ১৩ এর বিধান লঙ্ঘন করায় কেন ব্যবস্থা নেয়া হবে না, পত্রপ্রাপ্তির ১০ কর্মদিবসের মধ্যে যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে তার কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেক্রমে অনুরোধ করা হলো।

মাউশি সূত্রে জানা গেছে, দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অনুসন্ধান ও সুপারিশের পর কোচিং বাণিজ্যের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে এ শিক্ষকদের শোকজ করা হয়।

উল্লেখ্য, দুর্নীতি দমন কমিশনের অনুসন্ধান টিম ঢাকা মহানগরীর স্কুল-কলেজের কোচিং বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে অনুসন্ধানে এ চার প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের জড়িত থাকার প্রমাণ পায়। তাদের বিরুদ্ধে দুদক, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা দেয়।

কোচিং বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত থাকায় এর আগে দুদকের সুপারিশে গত ২ ফেব্রুয়ারি মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ১২, মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩, সরকারি ল্যাবরেটরি হাইস্কুলের ৮ এবং নিউ গভর্নমেন্ট হাই স্কুল ও খিলগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের একজন করে শিক্ষককে বদলির আদেশ দেয়া হয়।

সম্প্রতি রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে থেকে কোচিং বাণিজ্যের মাধ্যমে অর্থ উপার্জনের অভিযোগে রাজধানীর আট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৯৭ শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করেছিল দুদক।