কেন্দুয়ায় ঘাতক বাস প্রাণ কেড়ে নিল চাচা-ভাতিজার

আপডেটঃ ১০:৩৯ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ২২, ২০১৮

মোঃ মহিউদ্দিন সরকার, কেন্দুয়া প্রতিনিধি ঃনেত্রকোণা কেন্দুয়া-আঠারবাড়ী সড়কে বাস চাপায় সিএনজির যাত্রী চাচা ও ভাতিজা ঘটনাস্থলে প্রাণ হারিয়েছেন। এ সময় সিএনজির চালকসহ আরোও ৪জন আহত হন। এদের মধ্যে সিএনজির যাত্রী রোকন খন্দকার দিগদাইর কেন্দুয়া, কামাল মিয়া পেরাভাঙ্গা কিশোরগঞ্জ দুজনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। সিএনজি চালক শাহ আলম ও অপর যাত্রী কেন্দুয়া কুতুবপুর গ্রামের মানিক মিয়ার স্ত্রী নাদিরা আক্তার অন্যত্র চিকিৎসা নেন বলে জানাগেছে। নিহতরা হলেন পাচঁহার বড়বাড়ী গ্রামের মৃত আঃ রাজ্জাকের পুত্র আনজু মিয়া (৬০) এবং তার ভাতিজা বাড়রী গ্রামের মোতালিব মিয়ার একমাত্র পুত্র আমিনুল ইসলাম (২৬)।  (২২ জানু) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে কেন্দুয়া পৌরসভাধীন হেলিপ্যাড এর পাশের সড়কে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন ভূঞা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুকতাদিরুল আহমেদ, ওসি তদন্ত স্বপন চন্দ্র সরকার, ইউপি চেয়ারম্যান সফিকুল ইসলাম প্রমূখ। ইউএনও জানান, লাশ দুটির দাফন কাফনের জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগদ অর্থ প্রদান করা হবে। ওসি (তদন্ত) জানান, চট্টগ্রাম হতে ছেড়ে আসা মোহনগঞ্জ গামী যাত্রীবাহী সুখি পরিবহন ব-১১০০১ নম্বরের এ বাসটি, কেন্দুয়া থেকে যাত্রীবাহী সিএনজি নান্দাইল চৌরাস্তা যাওয়ার পথে চকপাড়া হেলিপ্যাড নামক স্থানে বাসটি সিএনজিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সিএনজি যাত্রী দুইজন মারা যান এবং আরোও চারজন আহত হন। খবর পেয়ে প্রায় ১৬ কিলোমিটার দূরে রামপুর বাজারে বাসটিকে জব্দ করা গেলেও চালককে পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে ওসি সিরাজুল ইসলাম জানান, দুর্ঘনা কবলিত সিএনজি ও বাসটিকে আটক করে থানায় রাখা হয়েছে। এখনও মামলা হয়নি।