৩ দিনে মেলায় কর আদায় প্রায় হাজার কোটি টাকা

আপডেটঃ ৯:২৫ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ০৪, ২০১৭

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক :অষ্টম আয়কর মেলায় তিন দিনে ঢাকাসহ সারাদেশে মোট ৯৮৪ কোটি ৭০ লাখ ৪৬ হাজার ১২৯ টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে।

এর মধ্যে তৃতীয় দিনে রাজস্ব আদায় ২৩৩ কোটি ৩৯ লাখ ৫৯ হাজার ৭১৪ টাকা।

শুক্রবার ছুটির দিন হওয়ায় আয়কর মেলা প্রাঙ্গণ ছিল করদাতাদের পদচারণায় মুখরিত। বিশেষ করে সরকারি ছুটি থাকায় বেসরকারি চাকরিজীবীরা কর প্রদান ও আয়কর সেবা গ্রহণ করতে এসেছেন।

মেলার তৃতীয় দিনে ঢাকাসহ সারাদেশের ৬০টি স্পটে মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তৃতীয় দিন মেলায় ২৩৩ কোটি ৩৯ লাখ ৫৯ হাজার ৭১৪ টাকার আয়কর আহরণ, ১ লাখ ৬৪ হাজার ২৫২ জনের সেবা গ্রহণ ও ৩৯ হাজার ৬৭২টি রিটার্ন দাখিল করেছেন।

২০১৬ সালের একই দিন সারাদেশে ২২৭ কোটি ৮ লাখ ৬৭ হাজার ৮৭০ টাকার আয়কর আহরণ, ১ লাখ ৪৩ হাজার ২৫৩ জনের সেবা গ্রহণ ও ২৪ হাজার ৮৬৪টি রিটার্ন দাখিল করেছেন।

তিন দিনে ঢাকাসহ সারাদেশে মোট ৯৮৪ কোটি ৭০ লাখ ৪৬ হাজার ১২৯ টাকার আয়কর আহরণ, ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৬৩১ জনের করসেবা গ্রহণ ও ১ লাখ ১০ হাজার ৬৪টি রিটার্ন দাখিল করেছেন।

আয়কর মেলা সূত্র জানায়, সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা ২০১৭-এর তৃতীয় দিনে ঢাকাসহ দেশের ৫৫টি জেলা, ৫টি উপজেলাসহ ৬০ স্পটে আজ মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবার রাজধানী ঢাকাসহ দেশের ৫৬টি জেলা শহরে, ৩৪টি উপজেলা, ৭১টি উপজেলায় (ভ্রাম্যমাণ) আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

মেলায় সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত করসেবা প্রদান করা হয়। ছুটির দিন হওয়ায় সকাল থেকে বুথে করদাতা থাকা পর্যন্ত সেবা প্রদান করা হয়। প্রতিদিনের মতো শুক্রবারও মেলায় করদাতাদের বাড়তি আকর্ষণ যোগ করে ‘ইনকাম ট্যাক্স আইডি কার্ড’। রিটার্ন জমা দিয়ে আইডি কার্ড নিতে করদাতাদের লাইন মেলা ছাড়িয়ে রাস্তায় পর্যন্ত পৌঁছে যায়। আগামীকাল শনিবার যথারীতি সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত মেলা চলবে।

প্রথমবারের মতো করদাতাদের ‘ইনকাম ট্যাক্স আইডি কার্ড বা স্মার্ট কার্ড’ এবং ‘ট্যাক্সপেয়ার’ স্টিকার প্রদান করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে আয়কর মেলায় ইনকাম ট্যাক্স আইডি কার্ড প্রদান করা হয়। আয়কর রিটার্ন দাখিল করার পরপরই কোনো করদাতা প্রাপ্তি স্বীকারপত্র ইনকাম ট্যাক্স আইডি কার্ড বুথে জমা দেওয়ার মাত্র ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে ২০টি বুথ থেকে যেকোনো করদাতাকে এ স্মার্ট দেওয়া হচ্ছে।

কর মেলায় ১০২টি বুথ থেকে করসেবা প্রদান করা হচ্ছে। এর মধ্যে ৩৮টি আয়কর রিটার্ন গ্রহণ বুথ, ২২টি হেল্প ডেস্ক, মুক্তিযোদ্ধা, সিনিয়র সিটিজেন, প্রতিবন্ধী, ই-টিআইএন বুথ থেকে করসেবা দেওয়া হচ্ছে। রয়েছে বৃহৎ করদাতা ইউনিট, সঞ্চয় অধিদপ্তর, কাস্টমস, ভ্যাট, কেন্দ্রীয় কর জরিপ অঞ্চল, বিসিএস কর একাডেমি, আইআরডি, ট্যাক্সেস আপিলাত ট্রাইব্যুনাল, কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট আপিলাত ট্রাইব্যুনালের বুথ।

আয়কর জমাদানের জন্য রয়েছে ই-ফাইলিং তিনটি বুথ, জনতা ব্যাংক, সোনালী ব্যাংকের ৯টি বুথ, ই-পেমেন্ট ও কিউক্যাশ-এর একটি করে বুথ। মেলায় কোনো করদাতা অসুস্থ হয়ে গেলে মেডিক্যাল টিম বুথ থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিতে পারেন। এছাড়া মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ, এটুআই, এনআইএলজি, র‌্যাব, পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার ৪টি বুথ রয়েছে। করদাতাদের জন্য রয়েছে নামাজের স্থান, ক্যান্টিন, ফটোকপি করার ব্যবস্থা।

করদাতাদের বিনা ভাড়ায় যাতায়াত সুবিধার জন্য রাজধানীর টিএসসি, বেইলি রোড, মিরপুর-২, উত্তরা ও যাত্রাবাড়ী থেকে ১৩টি শাটল চলাচল করছে। আয়কর অফিসে না এসে যেকোনো জায়গা থেকে অনলাইনে রিটার্ন দাখিলের জন্য প্রদান করা হচ্ছে ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড।