অদ্ভুত সব পাথর

আপডেটঃ ১০:২৪ পূর্বাহ্ণ | মার্চ ১৫, ২০১৭

সি এন এ  নিউজ,ডেস্ক ::বিশ্বের কয়েকটি দেশে অদ্ভুত সব পাথরের সন্ধান পাওয়া যায়। প্রাকৃতিকভাবে কোনো কোনো এলাকায় পাথর খণ্ড এমনভাবে ভারসাম্য বজায় রেখে দাঁড়িয়ে আছে যা দেখলে বিশ্বাসই হয় না এভাবে বিশাল কোনো পাথর খণ্ড স্থিতিশীল থাকতে পারে।

কোনো কোনো পাথরের আকৃতি মাশরুম, এমনকি জুতার মতো। অনেক পাথর হেঁটে চলে। ভাসমান এক পাথরের কথাও শোনা যায়।

ব্যালান্সড রক, উতাহ :  আমেরিকার উতাহ প্রদেশের আরচেস ন্যাশনাল পার্কের প্রবেশ পথ থেকে ৯ মাইল ভেতরে এই পাথরটি ৩৯ মিটার দীর্ঘ। নিচের পাথরটির উপর যে পাথরটি অদ্ভুতভাবে ভারসাম্য বজায় রেখে দাঁড়িয়ে আছে, তার দৈর্ঘ্য প্রায় ১৭ মিটার।

ব্যালান্সড রক, কলোরেডো: আমেরিকাতেই কলোরেডোর গার্ডেন অব গডসে আছে এই অদ্ভুত পাথরটি। রাস্তার পাশেই আছে বলে পর্যটকরা সহজেই এর পাশে গিয়ে ছবি তোলেন।

 

ব্যালেন্সিং রক, নোভা স্কশিয়া: কানাডার নোভা স্কশিয়া প্রদেশে লং আইল্যান্ডের সেইন্ট ম্যারি’স বে তে আছে এই পাথরটি। দেখুন কী অদ্ভুত অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছে! ৯ মিটার লম্বা এই পাথরটি আরেকটি পাথরের প্রান্তে দাঁড়িয়ে আছে অস্বাভাবিকভাবে।


আইডল রক, ব্রিমহাম মুর: ইংল্যান্ডের ব্রিমহাম মুর এলাকায় আছে অনেকগুলো অদ্ভুত পাথর। প্রাকৃতিক কারণে পাথরগুলো ক্ষয় হয়ে আশ্চর্য আকার ধারণ করেছে। তাদের একটি হলো আইডল রক। ছোট্ট একটি পাথরের ওপর কোনো এক দৈব শক্তির মাধ্যমে দাঁড়িয়ে আছে এটি।

মাশরুম রক, কানসাস: আমেরিকার কানসাসে মাশরুম রক স্টেট পার্কে অনেকগুলো পাথরের মধ্যে আছে মাশরুম আকৃতির দুটি পাথর। সেগুলোর পাশে  বিশাল জুতার আকৃতির আরেকটি পাথর আছে। অদ্ভুত দেখতে তাই না?

চিরেম্বা রকস, জিম্বাবুয়ে: জিম্বাবুয়ের রাজধানী  হারারের ১৩ কিলোমিটার দক্ষিণ পূর্বে আছে এই পাথরগুলো। দেশটির মুদ্রায় এই পাথরগুলোকে তুলে ধরায় বাইরের মানুষ এখন এদের সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হয়ে উঠেছে।

কেজেরাগবোল্টেন, নরওয়ে: প্রায় ১৫ বর্গফুট আয়তনের কেজেরাগবোল্টেন পাথর খণ্ডটি নরওয়ের কেজেরাগ পর্বতের দুটি বিশাল পাথরের মাঝখানে আটকে আছে। মাটি  থেকে প্রায় ৩০০০ ফুট উপরে আছে এই পাথরটি। সেখানে দাঁড়াতে হলে অবশ্যই অনেক সাহসী হতে হবে।

ভাসমান পাথর: সৌদি আরবের আল হাসা এলাকায় একটি অদ্ভুত পাথর আছে। এটি নাকি বছরের একটি নির্দিষ্ট সময়ে হাওয়ায় ভেসে থাকতে পারে! প্রতি বছর এপ্রিল মাসে পাথরটি মাটি থেকে ১১ সেন্টিমিটার উপরে ৩০ মিনিট ধরে ভেসে থাকে, এমন কথা বলছেন স্থানীয়রা। তাদের দাবি ১৯৮৯ সালের এপ্রিলে পুলিশের গুলিতে এক মুজাহিদ শহীদ হন এই পাথরের সামনে। এর পর থেকে এমন ব্যাখ্যাতীতভাবে নাকি ভাসে পাথরটি।

হেঁটে চলা পাথর: কখনো শুনেছেন পাথর একা একা পথ চলতে পারে? এমন ঘটনা দেখা যায় নেভাদার লিটল বোনি ক্লেইয়ার প্লায়ায়। বিশেষ করে ক্যালিফোর্নিয়ার ড্যাথ ভেলি ন্যাশনাল পার্কের রেস ট্রেক প্লায়াতে এ ধরনের চলমান পাথর দেখা যায় বেশি। সে পাথরগুলোর পেছনে দীর্ঘ পথ পাড়ি দেওয়ার দাগ থাকে। কাদা বা বরফের কারণে পিছলে অথবা প্রচণ্ড বাতাসে এসব পাথর এগিয়ে চলে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে আসল তথ্য এখনো অজানা।