পশুর মতো চারপেয়ে হাঁটার ব্যায়াম জনপ্রিয় হচ্ছে চীনে

আপডেটঃ ৪:১১ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ২৮, ২০১৫

ডেস্ক:

দুই হাত দুই ও পা ব্যবহার করে পশুর মতো হাঁটা শরীর সুস্থ রাখার জন্য উপকারী ব্যায়াম বলে এক চিকিৎসকের পরামর্শের পর চীনে এই ব্যায়াম ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাচ্ছে।

বিবিসি মনিটরিং চীনা নিউস সার্ভিসের একটি খবর উদ্ধৃত করে জানাচ্ছে, পূর্ব চীনের ঝেংঝু প্রদেশে অনেক স্বাস্থ্যসচেতন মানুষকে রাস্তায় দেখা যাচ্ছে হাতমোজা পরে দুই পা আর দুই হাত দিয়ে উবু হয়ে ফুটপাত ধরে হাঁটতে।

এভাবে হাঁটা দেখতে বেশ অস্বস্তিকর মনে হলেও ওই প্রদেশের একজন চিকিৎসক বলেছেন এভাবে হাঁটার স্বাস্থ্যগুণ অনেক।

হেনান প্রভিন্স হাসপাতালের ডেপুটি চিফ ফিজিশিয়ান লু পেইওয়ান বলছেন, এতে শরীরের কিছু কিছু মাংসপেশি আরো সক্রিয় হয়ে ওঠে, যেসব মাংসপেশি মানুষ সাধারণত ব্যবহার করে না। এই ব্যায়াম মানুষের হাড় ও লিগামেন্ট শক্ত করে।
ওই চিকিৎসকের রিপোর্টে বলা হয়েছে, এই ব্যায়াম অনেকটা প্রাচীন চীনা ওষুধের মতো কাজ করে।

এই ব্যায়াম পদ্ধতিতে মানুষকে পাঁচটি পশুর হাঁটাকে অনুকরণ করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এগুলো হলো ভালুক, বানর, হরিণ, বাঘ ও পাখি।

চীনে প্রচলিত ওষুধ ও চিকিৎসার বাইরে শরীর ভালো রাখার জন্য নানা ধরনের বিকল্প পদ্ধতি ব্যবহারের প্রচলন বহুদিনের এবং সেগুলো খুবই জনপ্রিয়।

চীনের কোনো কোনো জায়গায় পার্কে বা উন্মুক্ত স্থানে নৃত্যসঙ্গীতের তালে তালে পেছন দিকে হাঁটাও একটা জনপ্রিয় ব্যায়াম।

তবে দুই হাত আর দুই পা ব্যবহার করে পশুর মতো হাঁটার ব্যায়াম নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতেও ব্যাপক চর্চ্চা হচ্ছে। অনেকে বলছে, এভাবে হাঁটা ‘হাস্যকর ও উদ্ভট’।

সিনা ওয়েবো নামে চীনের জনপ্রিয় সামাজিক নেটওয়ার্কে একজন মন্তব্য করেছেন, ”আমার পাড়ার পার্কে এভাবে হাঁটতে হলে আমি লজ্জায় মরে যাব।”

”মানবজাতির বিবর্তন মনে হচ্ছে ৫০০০ বছর পিছিয়ে গেছে।” লিখেছেন আরেক সমালোচক।

তবে অনেকে বলছেন, এই ব্যায়াম যদি শরীরকে চাঙ্গা রাখে তাহলে আপত্তি কোথায়? ”অন্তত পার্কে বা উদ্যানে বাজনা বাজিয়ে উল্টো নাচার চেয়ে এটা অনেক ভালো- আর এই ব্যায়াম কেউ তো কারোকে বিরক্ত করছে না!”- বিবিসি।